নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গিতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে: স্পিকার

নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গিতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে: স্পিকার

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, স্মার্ট বাংলাদেশের স্মার্ট সিটিজেন হওয়ার জন্য নারীর প্রতি দৃষ্টিভঙ্গিতে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদ কার্যালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত বেলজিয়ামের রাষ্ট্রদূত দিদিয়ের ভান্ডারহাসেল্ট সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এলে স্পিকার এ কথা বলেন।

সাক্ষাৎকালে তারা সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপ, দ্বিপাক্ষিক ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থনৈতিক সহযোগিতা, লিঙ্গ সমতা, নারীর ক্ষমতায়ন এবং টেকসই উন্নয়নসহ স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ-বেলজিয়ামের সংসদীয় মৈত্রী গ্রুপের মাধ্যমে সংসদ সদস্যদের পারস্পরিক সফর বিনিময় দ্বিপাক্ষিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, সংসদীয় চর্চা এবং দুই দেশের জনগণের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা লিঙ্গ সমতা, নারীর ক্ষমতায়ন, নারীর প্রতি সমাজের দৃষ্টিভঙ্গি উন্নয়নে কাজ করে চলেছেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের নারীদের অর্থনৈতিক সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। এ দেশের গার্মেন্টস সেক্টরের এন্ট্রি লেভেলে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নারী কাজ করছে। দক্ষতার ওপর ভিত্তি করে তাদের বিভিন্ন স্তরে কাজের সুযোগ দিতে হবে।তিনি বলেন, এ দেশে ১৮-৩৫ বছর বয়সী প্রায় ৫ কোটি কর্মক্ষম জনশক্তি রয়েছে। তাই ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ড কাজে লাগানোর চ্যালেঞ্জে আমাদের সফল হতে হবে।

রাষ্ট্রদূত দিদিয়ের ভান্ডারহাসেল্ট বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ পরিদর্শন করে সংসদের নির্মাণশৈলীর প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন, জাতীয় সংসদের ভিত্তিতেই রয়েছে একটি সমৃদ্ধ লাইব্রেরি। তাই সংসদ সদস্যদের টেকসই চর্চাকে এগিয়ে নিতে হবে।

দিদিয়ের ভান্ডারহাসেল্ট আরো বলেন, বাংলাদেশের সার্বিক উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে বেলজিয়াম সহযোগিতা করবে।

এ সময় রাষ্ট্রদূতের বিশেষ সহকারী, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিচালকসহ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।