ফেব্রুয়ারির শেষে মুক্তি পাবে ‘কাজলরেখা’, ‘দরদ’ কবে?

ফেব্রুয়ারিতে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘কাজলরেখা’ এবং অনন্য মামুনের ‘দরদ’। তারিখও ছিল নির্ধারিত ২ ও ৯ ফেব্রুয়ারি। তবে এই দিনে মুক্তি পাচ্ছে না সিনেমা দুটি। গিয়াস উদ্দিন সেলিম জানিয়েছেন, ‘আমাদের সিনেমাটি ৯ ফেব্রুয়ারি ছবিটি মুক্তি দিতে পারব না, একটু এদিক-সেদিক হবে। তবে আশা করছি, ফেব্রুয়ারির শেষের দিকেই দর্শক হলে গিয়ে ছবিটি দেখতে পাবে।’কারণ হিসাবে এই নির্মাতা যে যুক্তি দেখিয়েছেন সেটি এমন, ‘আমাদের সিনেমাটি সরকারি অনুদানে নির্মিত হয়েছে। আগে তথ্য মন্ত্রণালয় দেখবে, তারপর আমরা সেন্সরে জমা দেব। জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে সময় নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছিল।’

শাকিব খান এবং বলিউডের সোনাল চৌহানকে নিয়ে অনন্য মামুন নির্মাণ করছেন ‘দরদ’। সিনেমাটি একাধিক ভাষায় ডাব করে একসঙ্গে ৩০টি দেশে মুক্তি দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, মামুন জানিয়েছিলেন ২ ফেব্রুয়ারি ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে আসবে।

তবে গতকাল এক ভিডিও বার্তায় জানালেন, নির্ধারিত দিনে সিনেমাটি মুক্তি পাবে না। তবে কবে মুক্তি পাবে সেই তারিখও সুনিদিষ্ট করে জানাতে পারেননি এই নির্মাতা।

‘কাজলরেখা’ নির্মিত হয়েছে ময়মনসিংহ গীতিকা অবলম্বনে। ৪০০ বছর আগের এই গল্প নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করাটা বেশ চ্যালেঞ্জের বলে জানিয়েছিলেন সেলিম। চরিত্রের লুক, লোকেশন, পোশাক, সেট—এসব নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তুলতে বেশ সময়ও লেগেছে। সিনেমাটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শরিফুল রাজ, মন্দিরা চক্রবর্তী, আজাদ আবুল কালাম, ইরেশ যাকের, রাফিয়াত রশিদ মিথিলা, খায়রুল বাশার, সাদিয়া আয়মান, ঝুনা চৌধুরীসহ অনেকে।

‘দরদ’ সিনেমাতে অভিনয় করেছেন বাংলাদেশ-ভারতের অভিনয়শিল্পীরা। শাকিব-সোনাল ছাড়াও তালিকায় আছেন পায়েল সরকার, বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী, রাজেশ শর্মা, এলিনা শাম্মী, ইমতু রাতিশ, রাহুল দেব, অলোক জৈন, সাফা মারিয়া, জেসিয়া ইসলামসহ অনেকে। সিনেমাটির শুটিং হয়েছে ভারতের বারাণসী ও এলাহাবাদে।