বাধ্য হলে ‘রাজনৈতিক সমাবেশে’ নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে

বাধ্য হলে ‘রাজনৈতিক সমাবেশে’ নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে

ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক বলেছেন, ‘সবগুলো রাজনৈতিক দলকে অনুরোধ করব, আপনারা সমাবেশ করেন, কিন্তু জনগণকে কষ্ট না দিয়ে।’তিনি বলেন, ‘হয়তো ভবিষ্যতে এমন সময় আসবে, জনগণ অতিষ্ঠ হইয়্যা গেলে তখন আমাদের বাধ্য হইয়্যা এ সমস্ত কর্মসূচির (রাজনৈতিক সমাবেশ) প্রতি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা লাগতে পারে।’

বুধবার (২৬ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে রাজধানী হোসনি দালানে এক ব্রিফিংয়ে এসব কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার।

এ সময় তিনি বলেন, ‘যারা সমাবেশের জন্য অনুমতি পাবেন, রাজনৈতিক সমাবেশ করা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। কিন্তু জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) দায়িত্ব এবং কর্তব্য।

রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে খন্দকার গোলাম ফারুক বলেন, ‘আপনাদের (সাংবাদিক) মাধ্যমে সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি অনুরোধ করব, এই যে ওয়ার্কিং ডে-তে বিশাল বিশাল সমাবেশ করে লাখ লাখ মানুষকে রাস্তায় যানজটে আটকে রাখা, সেই জিনিসটা মাথায় রেখে তারা যেন ভবিষ্যতে ওয়ার্কিং ডের কর্মসূচিগুলো পরিবর্তন করে বন্ধের দিনে নিয়ে যান।

রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘যারা সমাবেশস্থলে আসবেন, তারা যেন কোনোভাবেই লাঠিসোঁটা নিয়ে না আসেন, কোনো ব্যাগ নিয়ে না আসবেন, যাতে করে কোনো বিস্ফোরক থাকতে পারে।’

২৭ জুলাইয়ের কয়েকটি দলকে সমাবেশের জন্য অনুমতি দেওয়া হবে জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘সমাবেশ করার জন্য আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ এ পর্যন্ত মোট ৯টি রাজনৈতিক দলের আবেদন পেয়েছি। আমরা পর্যালোচনা করে, কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথাবার্তা বলে কয়েকটি দলকে তাদের সমাবেশের জন্য অনুমতি দিব।’