লড়াকু জয়ে শুরু জকোভিচের

লড়াকু জয়ে শুরু জকোভিচের
র‌্যাঙ্কিংয়ে ৮১তম কেওন সুন-ও। দক্ষিণ কোরিয়ান টেনিস তারকার বিপক্ষে নিঃসন্দেহে ফেভারিট শীর্ষ বাছাই নোভাক জকোভিচ। সাবিয়ান সুপারস্টার জয়টা ঠিকই পেলেন। তবে উইম্বলডনের মিশন শুরুর ম্যাচে সাফল্য পেতে বেগ পেতে হয়েছে ২১টি গ্র্যান্ড স্লামের মালিকের।

সোমবার উইম্বলডনে নিজের প্রথম ম্যাচে কেওনের বিপক্ষে একটি সেট হেরে জকোভিচের পক্ষে ফল ৬-৩, ৩-৬, ৬-৩, ৬-৪ গেম।

শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিলেন সুন-ও। দক্ষিণ কোরিয়ান তারকার দুর্দান্ত সার্ভ ফেরাতেও অসুবিধা হচ্ছিল জকোভিচের। সার্বিয়ান তারকার সার্ভিস ভেঙে প্রথম সেটেই এক সময় ৩-১ এগিয়ে গিয়েছিলেন কেওন। ছন্দ ফিরে পেয়ে টানা পাঁচটি পয়েন্ট পেয়ে গেম জিতে নেন জকোভিচ। দ্বিতীয় সেটটা জিতেই নেন কেওন। তৃতীয় সেটে ঘুরে দাঁড়ান জকোভিচ।

দ্রুত ম্যাচ নিয়ন্ত্রণে নেন তিনি। শেষ পর্যন্ত জোকারের অভিজ্ঞতার বিরুদ্ধে পেরে ওঠেননি কেওন। দু’জনের লড়াই চলে ২ ঘণ্টা ২৭ মিনিট।

টানা চতুর্থ উইম্বলডন ট্রফির মিশনে আগামীকাল দ্বিতীয় রাউন্ডে অস্ট্রেলিয়ার থানাসি কোক্কিনাকিসের মুখোমুখি হবেন জকোভিচ। এ বার শিরোপা জিতলে মোট ৭ বার উইম্বলডন জিতে ছুঁয়ে ফেলবেন পিট সাম্প্রাসকে। সামনে থাকবেন শুধু রজার ফেদেরার (৮)।

এদিকে তৃতীয় বাছাই ক্যাসপার রুড ৭-৬, ৭-৬, ৬-২ গেমে হারালেন আলবার্তো রামোস ভিনোলাসকে। নবম বাছাই ক্যামেরন নরি ৬-০, ৭-৬, ৬-৩ গেমে হারান পাবলো আন্দুজারকে।
মহিলাদের বিভাগে জিতলেন ইংল্যান্ডের খেলোয়াড় এমা রাডুকানু। সোমবার প্রথম রাউন্ডে তিনি ৬-৪, ৬-৪ হারান অ্যালিসন ফান উইটফাঙ্ককে।

গত ৪৫ বছরে কোনো বৃটিশ নারী উইম্বলডন শিরোপা উঁচিয়ে ধরতে পারেননি। রাডুকানুর নৈপুণ্যে ভর করে আক্ষেপ ঘোচানোর স্বপ্ন বুনছেন ইংলিশ সমর্থকরা। ১৯৭৭ সালে সবশেষ উইম্বলডন জিতেছিলেন গ্রেট বৃটেনের ভার্জিনিয়া ওয়েড।