লালমনিরহাটের আদিতমারীর ৮ ইউনিয়নে নির্বাচিত হলেন যাঁরা

বাংলাদেশ

এটিএন বাংলা ডেস্ক:
লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ৮ ইউনিয়নে চতুর্থ পর্যায়ে নির্বাচন ৭ মে,শনিবার শেষ হয়েছে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভোট গ্রহন চলে। দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া সব কয়টি ইউনিয়নে নির্বাচন হয়েছে অবাদ,সুষ্ট ও শান্তিপুর্ণ।

১নং দূর্গাপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান সালেকুজ্জামান প্রামানিক বিএনপি’র মনোনীত(ধানেরশীষ)৬হাজার ৬১০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আ’লীগ প্রার্থী নৌকা) ৪হাজার ৮০৯ ভোট পেয়েছেন।এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন।

২নং ভেলাবাড়ী ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে (নৌক)৭হাজার ২২ ভোট পেয়ে নির্বচিত হয়েছেন। বিএনপি’র প্রার্থী গোলাম কিবরিয়া রিপন(ধানেরশীষ) পেয়েছেন ৪হাজার ৯৫০ ভোট। এ ইউনিয়নে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন।

৩নং কমলাবাড়ী ইউনিয়নে ইস.আন্দোলন থেকে মোঃ আলাউদ্দিন আলাল (হাতপাখা)৪হাজার ৬৯ ৫ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন । নিকটতম পতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলী (নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৪৫৯ ভোট। এ ইউনিয়নে ৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেন।

৪নং সারপুকুর ইউনিয়নে আ’লীগের মনোনীত সাবেক চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলাম প্রধান (নৌকা) ৬হাজার ৪৯৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী হুমায়ুন কবীর (মোটরসাইকেল) পেয়েছেন ৪হাজার ৯৮৪ ভোট। এ ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন।

৫নং সাপ্টিবাড়ী ইউনিয়নে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী মোঃ রফিকুল আলম(নৌকা) ৭হাজার ২৯৪ ভোট পেয়ে নির্বচিত হয়েছেন। সাবেক চেয়ারম্যান অনন্ত কুমার রায়(আনারস) পেয়েছেন ৪ হাজার ১৫৬ ভোট। এ ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন।

৬নং ভাদাই ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী রোকনুজ্জামান রোকন(আনারস) ৬ হাজার ৩৮৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান কৃষ্ণকান্ত রায় বিদুর(নৌকা) পেয়েছেন ৪ হাজার ৭৬৫ ভোট। এ ইউনিয়নে ৬ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন।

৭নং পলাশী ইউনিয়নে আ’লীগের মনোনীত মোঃ শওকত আলী (নৌকা) ৭ হাজার ৭৮২ ভোট পেয়ে নির্বচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু হিয়া ইউনূস (মোটরসাইকেল) ৩হাজার ৫৮১ ভোট পেয়েছেন। এ ইউনিয়নে ৫ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন।

৮নং মহিষখোঁচা ইউনিয়নে আ’লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান মোসাদ্দেক হোসেন চৌধুরী (নৌকা) ৮হাজার ৭৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। বিএনপি’র আমজাদ হোসেন (ধানেরশীষ) ৪ হাজার ৭২৭ বোট পেয়েছেন। এ ইউনিয়নে ৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করেছেন। উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোঃ মমিনুর আলম বিজয়ী চেয়ারম্যানদের নির্বচনী ফলাফল নিশ্চিত করেছেন।

আদিতমারীর ৮টি ইউনিয়নেই নির্বাচন শান্তিপূর্ন পরিবেশে শেষ হয়েছে। বেলা ১১টার দিকে প্রকৃতির বৈরী আবহাওয়া ঠেকাতে পারেনি উৎসবমুখর পরিবেশকে। বেলা দু’টা মধ্যেই আবহাওয়া স্বভাবিক হয়ে যায়। আনসার-ভিডিপি, রিজার্ভ ফোর্স,বিজিবি,র‌্যাব বাহিনীর তৎপরতা ছিল চোখে পড়ার মত। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্্েরটগণ ছিলেন সদা সর্তকতায়। ছোটখাটো কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বচন হয়েছে অবাদ ,নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ন।