বিশেষ টেলিছবি ‘নীল কুয়াশা’

গ্যালারী নিউজ হাইলাইট

এটিএন বাংলা ডেস্ক:

এটিএন বাংলায় আজ (১৪ এপ্রিল) রাত ১০.৪৫ মিনিটে প্রচারিত হবে বিশেষ টেলিছবি ‘নীল কুয়াশা’। শফিকুর রহমান শান্তনুর রচনায় টেলিফিল্মটি পরিচালনা করেছেন সাখাওয়াত মানিক। অভিনয়ে মৌসুমী হামিদ, কল্যাণ, তাসনুভা তিশা, জনি, প্রিমা, জিয়াউল হাসান কিসুলু।

চার বন্ধু। চার জনের মধ্যে মিল শুধু একটাই – সবাই একসাথে পড়ছে। বিবিএ। অনেকে ভেবে অবাক হয় , এরা কিভাবে বন্ধু হলো ? এ যেন অস্টম আশ্চর্য। মিশু হচ্ছে দুষ্টের রাজা। বন্ধুদের কথার মাঝখানে হুল ফোটানোই তার একমাত্র লক্ষ্য। সারাক্ষন কোন না কোন অঘটনের চিন্তা তার মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে। কিন্তু বন্ধুদের কোন বিপদে সবার আগে ঝাপিয়ে পড়বে। বৃষ্টি যেন ভুল করে মেয়ে হয়ে জন্ম নিয়েছে। সবসময় ছেলেদের মতো পোষাক, ছেলেদের মতো আচরন এতে ওর বন্ধুরা যতটা আনন্দিত ঠিক ততোটা বিব্রত ওর বাবা মা। এনিয়ে অবশ্য ওর কোন মাথা ব্যথা নেই। নিজের মতো চলতেই পছন্দ করে সে। অভিককে ওর বন্ধুরা বিশ্বপ্রেমিক হিসেবে চেনে। প্রেমে পড়ার ওপরে গিনেস বুকে কোন ব্যবস্থা থাকলে সে নিশ্চিত ভাবে প্রথম স্থান অধিকার করতো। সে যেমন অতি দ্রুত প্রেমে পড়তে পারে তেমনি অতি তুচ্ছ কারনে তার প্রেম ভেঙেও যায়। এই নিয়ে তার প্রেমের সংখ্যা কত হলো তা নির্নয় করা এভারেস্ট জয়ের চেয়ে কঠিন। তাই সে চেষ্টা ওর বন্ধুরা বহু আগেই বাদ দিয়েছে। তিতলি হচ্ছে এই দলের সবচে আদুরে স্বভাবের মেয়েটি। গুডগার্ল খেতাবপ্রাপ্ত। চমৎকার গান করে। সম্প্রতি পারিবারিকভাবে তার বিয়ে ঠিক হয়েছে এক প্রবাসী ছেলের সাথে। মূলত অভিকের সাম্প্রতিক ছ্যাকা খাওয়া ও তিতলির বিয়ে ঠিক হওয়াকে কেন্দ্র করে তারা প্ল্যান করে বেড়াতে যাওয়ার। এই বেড়াতে যাওয়াটা তাদের প্রত্যেকের জন্য একটা বিশেষ সন্ধিক্ষন। এরপরে হয়তো চারবন্ধুর আর কখনো একসাথে বেড়ানো হবে না। জীবনের ব্যস্ততায় এক একজন এক একদিকে ছড়িয়ে পড়বে। তারা জোছনাবিলাস করবে বলে গাজিপুরে জঙ্গলের মধ্যে এক রিসোর্ট বেছে নেয়। এই রিসোর্টে এসে তাদের সাথে পরিচয় হয় আদৃতা’র। আদৃতা এক রহস্যময়ী মেয়ে। আদৃতা আসলে এক অতৃপ্ত আত্মা। এরপর বিভিন্ন রকম ঘটনার জন্মইদতে থাকে আদৃতা।