ফ্রান্সে চলছে রাষ্ট্রীয় শোক

আন্তর্জাতিক গ্যালারী নিউজ

এটিএন বাংলা ডেস্ক: প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় ১২৯ জন নিহত হওয়া ঘটনায় দেশটিতে রাষ্ট্রীয় শোক চলছে। প্রশিক্ষিত সন্ত্রাসীরা ৩টি দলে বিভক্ত হয়ে প্যারিসে হামলা চালায় বলে জানিয়েছে দেশটির প্রসিকিউটর ফাঁসোয়া মলিনোস।

এদিকে ৮ হামলাকারীর মধ্যে ১ ফরাসি নাগরিক সনাক্ত। প্যারিস হামলার পরও আইএস বিরোধী আভিযান অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছে ফ্রান্স।

ভয়, আতংক আর শোকে এখন গোটা ফ্রান্স এখন স্তব্ধ। শুক্রবারের ওই দুঃস্বপ্নের রাতের পর শিল্প আর রোমান্টিক নগরী ফ্রান্স এখন পুরোপুরি আতংকের নগরী।

এদিকে প্যারিস হামলার পেছনে প্রশিক্ষিত তিনটি দল জড়িত ছিল এবং তারা আলাদা আলাদাভাবে হামলা করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির প্রসিকিউটর ফাঁসোয়া মলিনোস। হামলাকারীদের মধ্যে ১ জনকে শনাক্ত করেছে গোয়েন্দারা।

৩০ বছর বয়সি ওই ফরাসি নাগরিক প্যারিসের শহরতলীতেই বসবাস করেন। শনিবার ওই  ফরাসি নাগরিকের বাবা-ভাইকে পুলিশি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তাদের ঘরবাড়িও তল্লাশি করা হয়েছে। এছাড়া ওমর ইসমাইল মোস্তেফা নাimagesমের আরেকজন হামলাকারীর কাছে সিরিয়ার পাসপোর্ট পাওয়া গেছে।

হামলায় অংশ নেওয়া সাতজন ভারী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ছিলো। তারা কিভাবে এবং কোন খান থেকে এসেছেন, তাদের কারা অর্থ দিয়েছে, সেগুলো আমরা খুঁজে বের করা হবে ।

অন্যদিকে, প্যারিস হামলার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে শনিবার ভোরে সীমান্ত অতিক্রমের সময় ৩ ফরাসি নাগরিককে গ্রেপ্তার করেছে বেলজিয়াম পুলিশ।

এদিকে সন্ত্রাসীদের প্যারিস হামলার পরও সিরিয়ায় আইএস জঙ্গি বিরোধী অভিযান ফ্রান্স চালিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন ফরাসী প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়াল ভ্যালস।

এদিকে এ ঘটনার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক, বোস্টনসহ অন্য সব বড় শহরে অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।