প্রামাণ্যচিত্র ‘মধুমতির তীরে’

গ্যালারী নিউজ বিনোদন হাইলাইট

প্রচার- ১৫ আগস্ট, বিকাল ৫টা ২০মিনিট
উপস্থাপনা- মহতী তাপশী, পরিচালনা- নবুয়াত রহমান।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এটিএন বাংলায় ১৫ই আগস্ট বিকাল ৫টা ২০মিনিটে প্রচার হবে প্রামাণ্যচিত্র ‘মধুমতির তীরে’। প্রকৃতির চেয়ে বড় আর্কাইভ আর হয় না। গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ার সবুজ শ্যামল এই প্রান্তরে দাড়িয়ে কথাটির সত্যতা আবারো অনুভুত হয়। সেই প্রকৃতির সান্নিধ্যেই ১৯২০ সালের ১৭ ই মার্চ জন্ম হয় বাংলা মায়ের সোনার ছেলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। প্রথম বিশ্ব যুদ্ধের গোলা বারুদে তখন ঢেকে থাকা গোটা পৃথিবীর মাঝে বাংলার ভাগ্য উপনিবেশিক আধারে মলিন। পরাধীনতার দিগন্তে স্বাধীনতার সূর্যের মতই অভ্যুদ্বয় বঙ্গবন্ধুর। দুই মেয়ের পর পরিবারের প্রথম পুত্র সন্তান তিনি। ছোট বেলা থেকেই তিনি ছিলেন দূরন্ত, সাহসী, একরোখা। বইয়ের পাতাতে, ক্যামেরার ফ্রেমে সচরাচর আমরা যে বঙ্গবন্ধু কে দেখতে পাই সেই মুজিব কিন্তুু তিনি একদিনে হয়ে ওঠেননি। তারই শৈশব, কৈশর আর যৌবন ঘেরা টুঙ্গিপাড়া প্রকৃতির অপরুপ নিদর্শণ মধুমতী নদীর তীরে অবস্থিত। এ নামটি ঘিরেই মহান এই জাতির জনকের শাহাদতের দিনে প্রচার হবে প্রামাণ্যচিত্র ‘মধুমতির তীরে’।

মধুমতির তীরে বসে নৌকা দেখতে ভাললাগতো ছোট খোকার। একসময় নৌকার প্রতি ভালবাসা তৈরি হয় তার। গিমাডাঙ্গ স্কুল, কাচারী বাড়ি, খেলার মাঠ, জামরুল গাছ ইত্যাদি স্মৃতিবিচরিত স্থান সহ ১১০ বছর বয়সী বঙ্গবন্ধুর সাথে ঘনিষ্ঠ শেখ নাজিরের স্মৃতির পৃষ্ঠা থেকে বঙ্গবন্ধুর অসামান্য অবদানের গল্পকথা উঠে আসবে এ অনুষ্ঠানে। মহতী তাপশীর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেছেন নবুয়াত রহমান।