প্রকাশক হত্যার প্রতিবাদে দেশের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধন

জাতীয়

জাগৃতি প্রকাশনীর প্রকাশককে হত্যা এবং শুদ্ধস্বরের কর্ণধারসহ আরও তিনজনকে কুপিয়ে জখমের প্রতিবাদের মানববন্ধন এবং বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে দেশের বিভিন্ন জেলায়।
প্রকাশক দীপনকে হত্যা ও টুটুল-তারেক-রণদীপমকে হত্যার চেষ্টার প্রতিবাদে মুন্সীগঞ্জে গণজাগরণ মঞ্চের মানববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়েছে। রোববার বিকেল ৩ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে জুবলী রোডে এই মানববন্ধন পালিত হয়।
মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা সকল মুক্তচিন্তার বিকাশের পক্ষের লোকজনকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।
মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন মুন্সীগঞ্জের গণজাগরণ মঞ্চের আহ্বায়ক শহীদ-ই-হাসান তুহিন, জেলা উদীচী শিল্প গোষ্ঠীর সাধারণ সম্পাদক হামিদা খাতুন, মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী সাব্বির আহম্মদ দীপুসহ প্রমুখ।
এদিকে একজন প্রকাশক হত্যা এবং তিনজনকে হত্যাচেষ্টার প্রতিবাদে রবিবার সুনামগঞ্জ পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন জেলা ছাত্র ইউনিয়নের নেতা-কর্মীরা। দুপুরে পৌরবিপণি এলাকা থেকে মিছিল বের হয়।
মিছিল শেষে শহরের আলফাত স্কয়ার এলাকায় প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য দেন জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি চিত্তরঞ্জন তালুকদার, জেলা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রইসুজ্জামানসহ প্রমুখ।
বক্তারা অবিলম্বে খুনিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে বলেন, সরকার মানুষদের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। একের পর এক ঘটনায় সরকারের অসহায়ত্ব প্রকাশ পাচ্ছে।
প্রসঙ্গত, দুর্বৃত্তদের হামলায় আহত শুদ্ধস্বরের প্রকাশক আহমেদুর রশিদ টুটুল এবং লেখক ও গবেষক রনদীপম বসুর বাড়ি সুনামগঞ্জে।
এছাড়া দুপুরে বগুড়ায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট এবং ছাত্র ইউনিয়ন জেলা শাখা। শহরের সাতমাথা থেকে বের হওয়া বিক্ষোভ মিছিল শহরের বিভিন্ন রাস্তা ঘুরে পরে বীরশ্রেষ্ঠ স্কয়ারে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানেই সমাবেশ হয়।
অন্যদিকে, নড়াইলের আদালত সড়কে গণজাগরণ মঞ্চ মানববন্ধন করেছে। এ সময় বক্তারা, ব্লগার ও প্রকাশক হত্যার ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে হত্যাকারী ও হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।