টেলিফিল্ম ‘কান পেতে রই’

গ্যালারী নিউজ হাইলাইট

এটিএন বাংলা ডেস্ক:

এটিএন বাংলায় আজ (২৬ জানুয়ারি) রাত ১০.৫৫ মিনিটে প্রচারিত হবে টেলিফিল্ম ‘কান পেতে রই’। মাতিয়া বানু শুকু’র রচনা ও পরিচালনায় টেলিফিল্মটিতে অভিনয় করেছেন রিয়াজ ও মেহজাবিন।

টেলিফিল্মের গল্প আবর্তিত হয়েছে এভাবেÑফয়সাল একটা প্রাইভেট কোম্পানীতে ভালো চাকরী করে। তার মা চিন্তিত ছেলেকে নিয়ে, কারণ ফয়সালের কাছের বন্ধুরা সবাই বিয়ে করে পুরোদস্তুর সংসারী, তার ছেলে নাকি এখনও পছন্দ করার মত পাত্রী খুজে পাচ্ছে না। ছেলের পছন্দের স্মার্ট পাত্রী মা খুজে দিতে পারছে না। ফয়সাল আর্লী রাইজার। রোজ সকালে নিজে ড্র্রাইভ করে আফিসে যায়। জ্যামের শহরে রাস্তায় বসে রোজ, ‘হ্যালো ঢাকা” অনুষ্ঠানটি শুনতে শুনতে একধরনের নেশা হয়ে গেছে। বা প্রেম হয়ে গেছে বলা ভালো। কারণ অনুষ্ঠানটি যিনি এ্যংকর জারা জাফরিন, তার কন্ঠের মাদকতা উপেক্ষা করার ক্ষমতা ফয়সালের দিন দিন কমে যাচ্ছে। সে এখন রেগুলার শ্রোতা এবং জারাকে রেগুলার এই ভক্তের এস এমএস পড়তে হয় ফোন কলের এন্সার করতে হয়।
একদিন আফিসে যাবার পথে ফয়সালের মনে হয় তার প্রেম হয়েছে জারার জন্য। যে প্ল্যান করে আজই জারার আফিসে গিয়ে তাকে সারপ্রাইজ দেবে। একতোড়া গোলাপ হাতে নিয়ে ফয়সাল জারার আফিসের সামনে গিয়ে নিজেই সারপ্রাইজড হয়ে যায়। তার ফোন কলের এন্সার দিতে দিতে যে বেরিয়ে আছে সেই জারা হুইল চেয়ারে বসা। থেমে যায় ফয়সালেরর পা। সে জারার সাথে দেখা না করে ফিরে আসে।
সপ্তাহ দুয়েকের বিশাল বিরতিতে ফয়সাল, জারার সাথে প্রেম করা উচিত হবে কি হবে না, হেড-টেল টেষ্ট করতে করতে ক্লান্ত হয়ে উপলব্ধি করে তার জারার জন্য সত্যিই প্রেম হয়েছে, হোক সে পঙ্গু। ফয়সাল জারার সাথে দেখা করে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। জারা এতো সহজে বিগলিত হবার মেয়ে না। তার প্রশ্নবাণে জর্জরিত ফয়সাল বুঝতে পারে এই প্রেম সম্ভব না। তাছাড়া জারা স্পষ্ট করে জানিয়েছে, সে প্রেম বিয়ে করে নিজের ভবিষ্যৎ নস্ট করবে না। বরং তার স্কলারশীপ হয়ে গেছে অস্ট্রেলিয়ায় সে সেখানে চলে যাবে আগামী মাসে। ফয়সালের প্রেম হলে তার সাথে যেতে পারে। ফয়সাল পণ করেছে সে কিছুতেই যাবে না দেশ ছেড়ে। কাজেই ফলাফল শুন্য, জারা আর ফয়সালের প্রেম হচ্ছে না।
এরমধ্যে একদিন ফয়সালের বস তাকে ডেকে জানায়, সামনের মাস থেকে তাকে অস্ট্রেলিয়ার ব্রাঞ্চে বসতে হবে। ফয়সার জারার সাথে দেখা করে জানায় সে যাচ্ছে জারার সাথে। জারা খুশি হয়। ফয়সাল জানায়, যাচ্ছে চাকরী সুত্রে। কারণ দেশ আর মাকে ছেড়ে সে দুরে থাকতে পারবে না বেশীদিন। জারা বলে, সে বিদেশে পড়তে যাচ্ছে সেটল হতে না। তাছাড়া অস্ট্রেলিয়ায় বসে গুড মর্নিং ঢাকা বলা সম্ভব না। সে ঢাকার মেয়ে। নিজ শহরের প্রেমে সে দেশে ফিরে আসবেই। এবারে ফয়সাল খুশি হয়, অস্ট্রেলিয়ায় বসেও সে জারার কন্ঠের ‘গুড মর্নিং ঢাকা’ মিস করতে চায় না। মানে জারাকেই মিস করতে চায় না।